1. azimazim0003@gmail.com : adnan sany : adnan sany
  2. bullumm12@gmail.com : Suff Reporter : Suff Reporter
  3. bddhakanews@gmail.com : Stuff Repoter : Stuff Repoter
  4. myboss8090@gmail.com : News Media : News Media
  5. admin@dhakanews.com : Stuff_Editor :
  6. rezaulkhan67@gmail.com : SUFF REPORTER : SUFF REPORTER
মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ১১:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
হোটেলের ঘরে একসঙ্গে পাকড়াও, জনপ্রিয় নায়ক-নায়িকাকে জুতোপেটা অভিনেতার স্ত্রীর জেলের জালে ধরা পড়ল অতি বিরল নীল রঙের গলদা চিংড়ি সাইফের প্রাক্তন স্ত্রী অমৃতার সঙ্গে কখনও দেখাও হয়নি কারিনার, কেন জানেন? বিয়ের এক বছরের মধ্যে শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করেন ফারহা খান! কেন? প্রসেনজিৎ-শ্রাবন্তীর সঙ্গে কলকাতার ছবিতে সিয়াম কম খরচে ঘর ঠাণ্ডার রাখার উপায়, প্রচণ্ড গরমেও ঘুমান শান্তিতে রণবীরের সঙ্গে ফুলশয্যার রাতের সিক্রেট ফাঁস আলিয়ার, হাঁ করণ! রইল ভিডিয়ো বিগবস কিনলেই উপহার পালসার মোটরসাইকেল যার বিয়ে তার খবর নেই, পাড়া পড়শীর ঘুম নেই: শাকিব খান দুই বছর আগে ৩ লাখ টাকায় কেনা কালা মানিকের দাম এখন ১৭ লাখ

মায়ের কলটি যেন আমার বেঁচে যাওয়ার উসিলা হয়ে এসেছিল

  • Update Time : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
  • ৭১১৯ Time View

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে অ'গ্নিকাণ্ডের একটু পরেই মাকে ফোন করে সেটি জানান হাফিজুর রহমান। আগু'ন লাগার খবর পেয়ে মায়ের মন আর মানছে কোথায়! একটু পর পরই ছেলের খবর নিচ্ছিলেন। মাকে বারবারই ফোনে অভয় দিয়ে যাচ্ছিলেন ছেলে। বি'স্ফো'রণের ঠিক আগ মুহূর্তে দু'র্ঘটনাস্থল থেকে দূরে সরে এসে প্রাণে বেঁচে যান হাফিজুর রহমান।

হাফিজুর রহমান জানান, অ'গ্নিকাণ্ড অদূরে দাঁড়িয়ে দেখছিলেন তিনি। এর মধ্যেই আগু'ন আরও বেশি করে ছড়িয়ে পড়লে ভিড়ও বাড়তে থাকে। ফলে কথা বলতে সমস্যা হচ্ছিল। বি'স্ফো'রণের একটু আগে আবার হাফিজকে ফোন দেন মা। মায়ের কথা ভালোভাবে শুনতে হাফিজ ভিড় থেকে অনেকটা দূরে সরে আসেন। এর মধ্যেই 'বিকট শব্দে বি'স্ফো'রণ। বন্ধ হয়ে যায় হাফিজের ফোন। কোনোরকমে দৌড়ে সরে যান নিরাপ'দ দূরত্বে। ঘটনার তাৎক্ষণিকতায় যেন নির্বাক হয়ে পড়েন হাফিজুর। কিছুক্ষণ পর থেকেই আসতে থাকে একের পর এক মৃ'ত্যুর খবর।

তিনি আর জানান, তার মোবাইলটি বন্ধ থাকায় পরিবারের সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে পারেননি তিনি। আবার কারও কাছ থেকে মিলছিল না তাঁর সন্ধানও। তাঁর খোঁজ পেতে তাই চট্টগ্রাম শহরের বহদ্দারহাটের বাসা থেকে রওনা হন ভাগনে কামর'ুল হাসান নিয়াজ ও নুরুল আবছার বাবুল। শনিবার রাত সাড়ে ১২টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছান তাঁরা। তবে হাজারো মানুষের ভিড় থেকে কোনোভাবেই মামা হাফিজুরকে শনাক্ত করতে পারছিলেন না তাঁরা। আড়াই ঘণ্টা ধরে তাঁরা চষে বেড়ান আশপাশের এলাকায়। পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে 'হতাশ হয়ে যখন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে দেখে শহরে ফেরার চে'ষ্টা করছিলেন তখনই খোঁজ মেলে হাফিজের।

হাফিজুর বলেন, বি'স্ফো'রণের একটু আগেও ঘটনাস্থলের একেবারেই কাছে ছিলাম। এমন সময় আমা'র মা ফোন করলে কথা বলার জন্য দূরে সরে যাই। তখনই 'বিকট শব্দে বি'স্ফো'রণটি ঘটে। আমা'র মায়ের কলটি যেন আমা'র বেঁচে যাওয়ার উসিলা হয়ে এসেছিল। সেই ফোনটা না এলে আমি বি'স্ফো'রণের মাঝখানেই পড়ে যেতাম।

হাফিজুর আরও বলেন, কোনোমতে দৌড়ে নিরাপ'দে সরিয়ে আসি। কিন্তু মোবাইলের চার্জ না থাকায় পরিবারকে জানাতে পারিনি। পরিচিত যারা ছিলেন বি'স্ফো'রণে তাদের অনেকের মোবাইল ফোনও ন'ষ্ট হয়ে যায়। সহকর্মীদের মৃ'ত্যুর খবর পেয়ে আমর'া সবাই বিহ্বল হয়ে পড়ি। আল্লাহ আমা'র মতো যদি অন্য সহকর্মীদের কোনো না কোনো উসিলায় বাঁচিয়ে দিতেন!

হাফিজুরের ভাগনে নিয়াজ ও বাবুল বলেন, মোবাইল নম্বর বন্ধ থাকায় কোনোভাবেই মামা'র সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছিলাম না। এদিকে পরিবারের সবার মধ্যে আতঙ্ক আর উদ্বেগ কাজ করছিল। আশপাশের অনেকের সঙ্গে যোগাযোগ করেও তাঁর অবস্থান নিশ্চিত করতে না পেরে আমর'াও 'হতাশ হয়ে পড়ি। হঠাৎ রাত তিনটার দিকে একটা নম্বর থেকে আমা'র নানুর কাছে ফোন দেন মামা। পরে সেই নম্বর সংগ্রহ করে ফোন দিয়ে মামা'র সাক্ষাৎ পাই।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Cialis
© All rights reserved © 2020 by Dhakanews.com
Theme Customized By BreakingNews